Home / সংবাদ / দেশে অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রা কেউ ব্যহত করতে পারবেনা: ইকবাল সোবহান

দেশে অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রা কেউ ব্যহত করতে পারবেনা: ইকবাল সোবহান

গতকাল ০৩ মে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বোমা’র উদ্যোগে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস-২০১৭ আলোচনা সভার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় “সঙ্কটকালের পর্যালোচনামূলক ভাবনা : সকলের অংশগ্রহণমূলক, ন্যায়ভিত্তিক শান্তিপূর্ণ একটি সমাজকে এগিয়ে নিতে গণমাধ্যমের ভূমিকা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা ও সাংবাদিক সম্মাননা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বোমা’র সাধারণ সম্পাদক এ কে এম শরিফুল ইসলাম খানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের  মাননীয় তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

 

গতকাল বুধবার বিকাল ৪ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে  বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের উদ্যোগে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস-২০১৭ আলোচনা সভার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশে যেকোনো সময়ের চেয়ে বর্তমান সরকার বেশি গণমাধ্যমবান্ধব। বর্তমানে গণমাধ্যম সবচেয়ে বেশি স্বাধীনভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তবে স্বাধীনতার নামে গণমাধ্যমের অপপ্রয়োগ যাতে না হয় তার জন্যও সচেতন থাকতে হবে সাংবাদিক ও গণমাধ্যম মালিকদের।

বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স হলরুমে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের (বোমা) উদ্যোগে আয়োজিত বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র আর গণমাধ্যম একটি আরেকটির পরিপূরক। যেখানে গণমাধ্যম যত বেশি শক্তিশালী সেখানে গণতন্ত্রও তত বেশি শক্তিশালী। পরমত সহিষ্ণুতাই গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় কথা। আলোচনা, মতপ্রকাশ, ঐক্য, সংহতি হলো গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ সিঁড়ি। মৌলিক অধিকার হলো মতপ্রকাশের স্বাধীনতা।

তিনি আরো বলেন, অনলাইন সাংবাদিকতাকে একটি নীতিমালার আওতায় এনে শক্তিশালী গণমাধ্যম হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত আন্তরিক। দ্রুততম সময়ে এই নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে। অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রা কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না।

অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এ মাধ্যমে নিয়োজিত সংবাদকর্মীদের পারিশ্রমিক যথাযথভাবে প্রদান করুন। অর্থের অভাবে যাতে তারা অপসাংবাদিকতায় লিপ্ত না হয়।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক বলেন, যারা অনলাইন পত্রিকায় কাজ করেন, তাদের বেতন-ভাতা মালিকরা নিশ্চিত করবেন। আমরা প্রয়োজনে অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রগতিতে সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করব। আশা করি, তিনি বিগত সময়ে গণমাধ্যমের বিভিন্ন সহযোগিতার মতো অনলাইন গণমাধ্যমের বিকাশে সহায়তা করবেন।

অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এবং নিউজ ২১ বিডির সম্পাদক ও এ কে এম শরিফুল ইসলাম খান বলেন যদিও সংবিধানে গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ কিন্তু সরকার বিগত এক যুগেও অনলাইন গণমাধ্যমকে কোন স্বীকৃতি প্রধান করতে পারে নাই। গত ৫ বছরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে কমিটি একটি খসরা নিতিমালা জমা দিলেও আজও তা বাস্তবায়নের জন্য কোন উদ্যোগ নেয়নি, বরং নিবন্ধনের নামে সারাদেশে অনলাইন গণমাধ্যম মালিক বা প্রকাশকদের নানা হয়রানি করছে আইন শরিলিংখলা। কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী একটি স্বাধীন অনলাইন কমিশন গঠন না করে জোর করে সম্প্রচার কমিশনের অধীনে চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে যা অনলাইনের সাথে সংশ্লিষ্টরা কখনো মেনে নিবেনা। এছারা অন্যান্য দেশের থাকলেও বাংলাদেশে কোন ডোমেইন নীতিমালার উদ্যোগ সরকার এখনো নেয়নি।সরকার অনলাইন গণমাধ্যম এর সাথে বিমাতা সুলভ আচরন করে পরিস্থিতি জটিল করছে। এই বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে অবিলম্বে বাবস্থা নিতে অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও যে ৩ জনকে বোমা সম্মাননা দেয়া হয়েছে তারা হলেন  ফটো নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক আবু সুফিয়ান, দৈনিক সময় সংবাদের পক্ষে  সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আরিফ মোতাহার এবং সাপ্তাহিক জনতার গোয়েন্দার সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন। এছাড়া মরণোত্তর সম্মাননা দেয়া হয় মরহুম সাংবাদিক সফিউদ্দিন আহমেদকে, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি।

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বোমা’র প্রতিস্তাতা উপদেষ্টা খালেকুজ্জামান চৌধুরী,  ইউএনবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্যারিস্টার জাকির হোসাইন, নিউজ২১ বিডির ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সৈয়দ হোসাইন সৈকত, দৈনিক সময় সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আরিফ মোতাহার, হুমায়ন কবির, কাউসারুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এসোসিয়েশনের সভাপতি সাংবাদিক নেতা জয়ন্ত আচার্য্য। সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহাদৎ স্বপন।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মিডিয়া এসোসিয়েশনের ক্যাপেন্টন রেজাউল করিম সম্পাদক আমাদের সংবাদ, তুসার আহমেদ সম্পাদক মোহাম্মাদী নিউজ এজেন্সী,খালেদ সাইফুল্লাহ সম্পাদক প্রকাশক ডিজিটাল সময়,  মনোয়ার হোসেন সিদ্দিকি সম্পাদক দৈনিক বাংলার ডাক, ফটো নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক আবু সুফিয়ান, টোটাল নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক মাহফুজা ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক ও মু্ক্তি নিউজের সম্পাদক মোঃ শাহপান সিদ্দিকী( তারেক), নতুন দিনের সম্পাদক তাজউদ্দীন উল্লাস,নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজুদ্দিন, বিডিটুডেস এর সম্পাদক সজিব খান, বিবিসি নিউজ এর সম্পাদক নাইম, ঢাকা নিউজ ১৬ এর সম্পাদিকা শেখ লাবণ্য হক, পিপলস নিউজের মেহেদি হাসান, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কেন্দ্রীয় কমিটির  প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রেসিডিয়াম সদস্য , মো. নুরুজ্জামান ভুট্ট, ভিনিউজের নিউজ এডিটর নুরে আলম সিদ্দিকী খোকন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *